ঢাকাবৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

যেভাবে ঘুমালে মস্তিষ্কের ক্ষতি হতে পারে !

লাইফস্টাইল ডেস্ক
জুন ১০, ২০২২ ১০:০৩ অপরাহ্ণ / ই-প্রিন্ট ই-প্রিন্ট
                                                       
                           
Link Copied!
ই-প্রিন্ট ই-প্রিন্ট                            

শরীরকে সুস্থ রাখতে ঘুমের কোনো বিকল্প নেই। প্রতিদিনের ৮ ঘণ্টার ঘুম আপনাকে যেমন রাখবে সুরক্ষিত তেমনি রাখবে প্রাণবন্ত। কিন্তু অনেকেই ৮ ঘণ্টার ঘুমকে পূর্ণ করতে যে কোনো জায়গায়ই ঘুমিয়ে পড়েন। এছাড়া রাতে ঘুমাতেও ঘুমের সঠিক ভঙ্গি মেনে চলেন না। সেক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এমন অভ্যাসে স্নায়ু বা মস্তিষ্ক ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

 

ঘুমের সঙ্গে জড়িয়ে আছে আমাদের ব্রেইন বা মস্তিষ্ক এবং শ্বাস প্রশ্বাসের নানাদিক। তাই গবেষকরা মনে করেন, ঘুমের সময় অবশ্যই সঠিক নিয়মে বা ভঙ্গিতে ঘুমানো উচিত।

তা না হলে এমন ঘুমে শরীরে উপকারিতার পরিবর্তে খারাপ প্রভাবের পরিমাণই বেশি হবে। কারণ নিজের খেয়াল খুশিমতো ঘুমের অভ্যাসে কাঁধ, ঘাড় ও মেরুদণ্ডের ব্যথার সমস্যা দেখা দেয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ঘুমের সবচেয়ে খারাপ ভঙ্গি হলো চিত হয়ে শুয়ে হাত মাথার ওপর ভাঁজ করে ঘুমানো। কারণ হিসেবে তারা বলেন, ঘুমানোর সময় দুই হাতের তালু মাথার পেছনে গুঁজে রাখলে কাঁধের স্নায়ুর ওপর চাপ পড়ে।

দীর্ঘমেয়াদে যা স্নায়ুবিক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। ঘুমের সময় বেশি উঁচু বালিশ ব্যবহার করাও এ বিপত্তি ডেকে আনতে পারে।

এভাবে ঘুমালে অনেক সময় হাত, কাঁধ ও পিঠে হতে পারে অবশ অনুভূতি। দ্রুত গতিতে শ্বাস প্রশ্বাস হওয়ায় দীর্ঘমেয়াদে অনেকেরই শ্বাসনালী চিকন হওয়ার সমস্যা দেখা দেয়।

নাক ডাকার প্রবণতাও বেড়ে যায় অনেকটাই। তাই আপনার এমনভাবে ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে এখনই সে অভ্যাসের পরিবর্তন করুন।

চিকিৎসকরা বলছেন, ঘুমের ক্ষেত্রে সবচেয়ে আদর্শ ভঙ্গি হলো পিঠের ভরে চিত হয়ে শুয়ে দুহাত দুপাশে ছড়িয়ে রাখা। এতে মেরুদণ্ড ও ঘাড় সুস্থ থাকে। যা আপনার শারীরিক সুস্থতাকে নিশ্চিত করে।