ঢাকাবৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

স্যুটকেসে করে পুতিনের মলমূত্র নেওয়া হয় মস্কোয় বিদেশ সফরে গেলে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
জুন ১৭, ২০২২ ৩:৫৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ইউক্রেন আগ্রাসনের পর থেকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সম্পর্কে নানাবিধ তথ্য চাওড় হচ্ছে। এবার জানা গেলো, বিদেশ সফরে গেলেই রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মলমূত্র সংগ্রহ করেন তার দেহরক্ষীরা। তারপর সেগুলো স্যুটকেসে করে মস্কোয় নেওয়া হয়।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের স্বাস্থ্য নিয়ে ছড়িয়েছে নানা ‘গুঞ্জন’। শোনা গেছে, তিনি না কি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। আবার কখনো বৈঠকে তার অনুপস্থিতি ঘিরেও স্বাস্থ্য নিয়ে গুঞ্জন তৈরি হয়।

ফরাসি নিউজ ম্যাগাজিন ‘প্যারিস ম্যাচ’-এর দুই সাংবাদিকের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, পুতিনের স্বাস্থ্য সম্পর্কে যাতে কোনো তথ্য কারও হাতে না যায়, সে কারণেই বিদেশ সফরের সময় রুশ প্রেসিডেন্টের মলমূত্র সংগ্রহ করে মস্কোয় ফেরত নিয়ে যান তার দেহরক্ষীরা। মূলত, পুতিনের স্বাস্থ্য-সংক্রান্ত তথ্য যাতে প্রকাশ্যে না আসে, সে জন্যই এই ‘কাণ্ড’ করেন দেহরক্ষীরা, এমনটাই দাবি করা হচ্ছে।

ডকট্রিন অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজি কনসাল্টিংয়ের সভাপতি এবং ডিআইএ গোয়েন্দা কর্মকর্তা রেবেকাহ কফলার বলেন, পুতিন তার স্বাস্থ্য সংক্রান্ত কোনো তথ্য বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থার হাতে চলে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন।

ফরাসি প্রকাশনাটি আরও জানায় যে রাশিয়ার ফেডারেল গার্ড সার্ভিসের একজন বিশেষ সহকারী একটি স্যুটকেস বহন করে যাতে পুতিনের মলমূত্র সংগ্রহ করা হয় এবং মস্কোতে ফেরত পাঠানো হয়।

রাশিয়া সংক্রান্ত দুটি বইয়ের লেখক রেজিস জেন্টে ও এক দশকেরও বেশি সময় ধরে গবেষণা করা মিখাইল রুবিনের সঙ্গে ওই সংবাদমাধ্যম কথা বলে বিভিন্ন তথ্য জানতে পেরেছেন। তার মধ্যে দুটি বিষয় হলো, পুতিনের ২০১৭ সালের ২৯ মে ফ্রান্স সফর ও ২০১৯ সালের অক্টোবরে সৌদি আরব সফরের সময় মলমূত্র সংগ্রহ করা হয়েছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, প্রেসিডেন্ট পুতিন ক্ষমতায় বসার পর থেকেই এমনটি ঘটতে পারে। তবে এ ধরনের ঘটনা অস্বীকার করছেন রাশিয়ার কর্মকর্তারা।

সূত্র: ফক্স নিউজ, এনডিটিভি