ঢাকাশুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেভাবে যাবেন

Emran Rahman Anim
জুন ২৫, ২০২২ ৭:২৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে আজ শনিবার মুন্সীগঞ্জের মাওয়ায় সুধী সমাবেশে আমন্ত্রিত অতিথিদের ঢাকা হতে মাওয়া যাতায়াতের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে ট্রাফিক নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। পুলিশের এক বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ নির্দেশনা দেয়া হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও নিউমার্কেট এলাকার আমন্ত্রিত অতিথিরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন চাঁনখারপুল (নিমতলী) মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বামলেন-ধোলাইপাড় টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং (এক) জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস দিয়ে প্রবেশ করবেন।

জিরো পয়েন্ট (বঙ্গবন্ধুএভিনিউ গুলিস্তান) এলাকার আমন্ত্রিত অতিথিরা জিরো পয়েন্ট-গুলিস্তান আহাদ বক্স সংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বামলেন-ধোলাইপাড়-টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং-জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস দিয়ে প্রবেশ করবেন।

তিঝিল শাপলা চত্ত্বর ও ইত্তেফাক এলাকার আমন্ত্রিত অতিথিরা মতিঝিল শাপলা চত্ত্বর-ইত্তেফাক ক্রসিং-হাটখোলা মোড় সংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বাম লেন-ধোলাইপাড়-টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং-জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস দিয়ে প্রবেশ করবেন।

কমলাপুর, টিটিপাড়া এলাকার আমন্ত্রিত অতিথিরা কমলাপুর, টিটিপাড়া ক্রসিং-গোলাপবাগ মোড় (এক) ইনগেট সংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের প্রবেশ মুখ-যাত্রাবাড়ী অংশের বামলেন-ধোলাইপাড়-টোলপ্লাজা-ধোলাইপাড় ক্রসিং-জুরাইন ফ্লাইওভার-বুড়িগঙ্গা সেতু-মাওয়া এক্সপ্রেস দিয়ে প্রবেশ করবেন।

অনুষ্ঠানস্থলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে পর্যাপ্ত সময় হাতে নিয়ে ঢাকা মহানগরী হতে যাত্রা শুরু করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এদিকে, মাদারীপুরের শিবচরের কাঠালবাড়ীতে অনুষ্ঠিত জনসমাবেশে অংশগ্রহণকারী অতিথিদের চলাচলের জন্য নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।

রাজশাহী বিভাগের রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, জয়পুরহাট জেলা এবং রংপুর বিভাগের কুড়িগ্রাম, রংপুর, লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, নীলফামারী জেলা সড়কের যানবাহনসমূহ লালনশাহ সেতু অথবা যমুনা সেতু ব্যবহার করবে। তবে প্রতিকুল আবহাওয়ায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরি ঘাঠে ফেরি পারাপার ব্যাহত হতে পারে বিধায় লালনশাহ সেতু ব্যবহার করা সমীচীন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, কক্সবাজার, নোয়াখালি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান জেলা সড়কের যানবাহনসমূহ চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাট ব্যবহার করবে।

ময়মনসিংহ বিভাগ, সিলেট বিভাগ এবং ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী জেলা হতে আগত যানবাহনসমূহ ঢাকা মহানগরীতে প্রবেশের পরিবর্তে কালিয়াকৈর-নবীনগর হয়ে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট ব্যবহার করবে।

মুন্সীগঞ্জে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের জন্য যাতায়তের নির্দেশনায় বলা হয়েছে লাল স্টিকারযুক্ত অতিথিদের গাড়ি ড্রপিং পয়েন্ট এ গমনের আগে বামের লেন ব্যবহার করবে এবং গাড়ি পার্কিং এর জন্য পদ্মা সেতু (উত্তর) থানার পূর্বে অবস্থিত রেল ব্রিজের নিচে মাঠে প্রবেশ করবে।

নীল স্টিকারযুক্ত অতিথিদের গাড়ি ড্রপিং পয়েন্ট এ প্রবেশের আগে মাঝের লেন ব্যবহার করবেন এবং গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য চন্দ্রের বাড়ি চৌরাস্তা সংলগ্ন ওয়ারি স্কুলের মাঠে প্রবেশ করবে।

সবুজ স্টিকারযুক্ত অতিথিদের গাড়ি ড্রপিং পয়েন্টে প্রবেশের আগে ডানের লেন ব্যবহার করবে এবং গাড়ি পার্কিং এর জন্য মাওয়া (এক) শিমুলিয়া ফেরি ঘাটে প্রবেশ করবে।

মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে জেলা থেকে মাদারীপুরের শিবচরের কাঠালবাড়ীর জনসমাবেশে অংশগ্রহণকারী অতিথিদের জন্য নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের সার্ভিস রোড ব্যবহার করে ছনবাড়ি হতে বামের রোড ব্যবহার করে সিরাজদিখানগামী রোডে প্রবেশ করবেন।

সিরাজদিখানগামী রোডের কুসুমপুর বাজার থেকে ডানে প্রবেশ করে নওপাড়া হয়ে লৌহজং থানার সামনে দিয়ে শিমুলিয়া মোড় ও মাওয়া চৌরাস্তা হয়ে পুরাতন মাওয়া ফেরিঘাটে প্রবেশ করবেন।

মাদারীপুরের শিবচরের কাঠালবাড়ীর জনসমাবেশে অংশগ্রহণকারী অতিথিদেরকে সকাল ৮ টার আগে পুরোনো মাওয়া ফেরিঘাটে প্রবেশ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত লঞ্চে চলাচল করতে পারবেন।

২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে ২৪ জুন সকাল ৬টা হতে ২৬ জুন সকাল ৬টা পর্যন্ত পদ্মা সেতুর সঙ্গে সংযুক্ত মহাসড়কে কাভার্ডভ্যান এবং ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকবে। এ প্রেক্ষিতে, ঢাকা মহানগরী এলাকা থেকে মুন্সীগঞ্জ জেলার মাওয়াগামী কাভার্ডভ্যান এবং ট্রাকসমূহকে ২৪ জুন সকাল ৬টা থেকে ২৬ জুন সকাল ৬টা পর্যন্ত পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া এবং চাঁদপুর-শরীয়তপুর রুটের ফেরিতে চলাচলের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।