ঢাকাবৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহে শিশুদের করোনার টিকা দেওয়া হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ইমরান রহমান অনিম
জুন ২৯, ২০২২ ৮:১৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহে ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের করোনাভাইরাসের টিকাদান শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানা তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ‘শিশুদের জন্য যে টিকা প্রয়োজন, তা জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময়ে পাওয়া যাবে।আমাদের কাছে এ ধরনের খবর আছে।এটা যদি হাতে চলে আসে, তাহলে আমরা জুলাই মাসের শেষে ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু করতে পারব। এই টিকাদান কার্যক্রম চালাতে যে ধরনের ডকুমেন্টেশন প্রয়োজন, আশা করি তা আমরা এই সময়ের মধ্যে শেষ করতে পারব।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনাভাইরাইসের সংক্রমণ ফের বাড়তে থাকায় সরকার কিছুটা চিন্তিত। তবে স্বাস্থ্য বিভাগ এ নিয়ে শঙ্কিত নয়। আমরা প্রস্তুত আছি। আমাদের হাসপাতালের উন্নয়ন চলমান আছে। হাসপাতালে এখন তেমন রোগী নাই। রোগী এলে চিকিৎসা দেওয়ার মতো সক্ষমতা ও প্রস্তুতি আছে ‘

এর আগে গত সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছিলেন, ১২ বছরের কমবয়সীদের ফাইজারের টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন তারা। আর টিকা নেওয়ার জন্য ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের জন্ম নিবন্ধন সনদের নম্বর দিয়ে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে হবে।

২০২১ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে ষাটোর্ধ্বদের টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। পর্যায়ক্রমে টিকা পাওয়ার বয়সসীমা কমিয়ে ১৮ বছর করা হয়। সর্বশেষ গত বছর ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের করোনা টিকার আওতায় আনা হয়। এবার ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের করোনা টিকার আওতায় আনা হচ্ছে।