ঢাকাশনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বুয়েটের পর ঢাবির ‘ক’ ইউনিটেও প্রথম আসির

ইমরান রহমান অনিম
জুলাই ৪, ২০২২ ৩:১৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েটে) ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করা নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী আসির আনজুম খান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ‘ক’ ইউনিটেও প্রথম হয়েছেন। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করার পর দেখা যায়, ১১৫ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়েছেন তিনি। আর মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় হয়েছিলেন ষষ্ঠ।

বুয়েট, মেডিকেল ছাড়াও গাজীপুরে অবস্থিত ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির (আইইউটি) ভর্তি পরীক্ষাতেও অষ্টম হয়েছিলেন তিনি।

ঢাবির ‘ক’ ইউনিটে আসিরের সর্বমোট প্রাপ্ত নম্বর ৯৫। তিনি এমসিকিউতে পদার্থ বিজ্ঞানে পেয়েছেন ১৪, রসায়নে ১৫, গণিতে ১৫, জীব বিজ্ঞানে ৮.৫ পেয়েছেন। আর মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ তার মোট প্রাপ্ত নম্বর ১১৫। তার রোল নম্বর ২১৩৩৯৯৫।

এবারের ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রকাশিত ফলাফলে আরও দেখা যায় একই নম্বর পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন নটরডেম কলেজের আরেক শিক্ষার্থী খালিদ হাসান তুহিন, আর সমান নম্বর পেয়ে জয়পুরহাট ক্যাডেট কলেজের শিক্ষার্থী জারিফা তাবাসসুম তৃতীয় হয়েছেন।


এর আগে, সোমবার (৪ জুলাই) দুপুর ১২টার দিকে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এ ফল প্রকাশ করেন। এতে পাস করেছেন ১১ হাজার ৪৮৬ জন। পাসের হার ১০ দশমিক ৩৯ শতাংশ। ফেল ৮৯ দশমিক ৬১ শতাংশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট (https://admission.eis.du.ac.bd) থেকে ফল জানা যাবে। এ ছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মেধাতালিকাও ডিন অফিসে প্রদর্শিত হবে।

আবেদনকারীরা রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক অথবা টেলিটক নম্বর থেকে DU>Space> KA> Space> Roll Number টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে সেন্ড করে ফিরতি মেসেজে ফল জানতে পারবেন।

গত ১০ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকের বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের অধীন বিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, ফার্মেসি, আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদ এবং পরিসংখ্যান গবেষণা ও শিক্ষণ ইনস্টিটিউট, পুষ্টি ও খাদ্য-বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট, তথ্যপ্রযুক্তি ইনস্টিটিউট, ইনস্টিটিউট অব লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি এবং শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধীন ৩৩টি বিভাগ রয়েছে।

এবারের ভর্তি পরীক্ষায় ১ হাজার ৭৮১টি আসনের বিপরীতে পাস করেছেন ১১ হাজার ৪৬৬ জন। মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ১০ হাজার ৩৭৪ জন।