সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০ ইং, ১০ কার্তিক ১৪২৭ বাংলা

ইউএনও লাঞ্ছনা সরকারকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র: পানিসম্পদ সচিব
পাবনা প্রতিনিধি প্রকাশিত হয়েছে: ২০২০-১০-১৬ ১২:২৬:০৭ /
ভারতকে দেখুন, কী নোংরা: ডোনাল্ড ট্রাম্প

পাবনায় বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আাসিফ আনাম সিদ্দিকীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক ও সরকারকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র বলে মন্তব্য করেছেন আ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশনের সহসভাপতি ও পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবীর বিন আনোয়ার।

বৃহঃস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সন্ধ্যায় বেড়া উপজেলা পরিষদে ইউএনও লাঞ্ছিতের ঘটনা তদন্ত শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা বলেন।

পানি সম্পদ সচিব বলেন, ইউএনও লাঞ্ছিতের ঘটনায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বলেছেন। মামলা দায়ের হয়েছে, বরখাস্ত পৌর মেয়র আব্দুল বাতেনকে আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি আরও বলেন, বেড়ার জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ তাকে বলেছেন, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও এতদিন বেড়া ছিল পরাধীন। পৌর মেয়র আব্দুল বাতেনের কাছে সকলে ছিল জিম্মি। পৌর মেয়রের নিজস্ব মনগড়া আইনে চলছে এখানকার সকল কার্যক্রম। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করেছেন। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের ফাঁসিতে ঝুলিয়েছেন। এ সব ঘাপটি মেরে থাকা ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধেও যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কবীর বিন আনোয়ার বলেন, সরকারী কর্মকর্তা যারা জনপ্রতিনিধিদের অশোভন আচরণে ভয়ভীতির মধ্যে আছেন, আ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে তাদের প্রতি সহমর্মিতা জানাচ্ছি। অসদাচরনের বিরুদ্ধে সরকারী কর্মকর্তারা একজোট ও সোচ্চার আছেন, আমরা আইনগতভাবেই এসব ঘটনা মোকাবেলা করব।

এর আগে কবীর বিন আনোয়ার ইউএনও লাঞ্ছিতের প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে ঘটনার বিবরণ শোনেন। এ সময় তার কাছে ঘটনার তথ্য প্রমাণাদিও তুলে দেয়া হয়। পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ, পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম, বেড়া ইউএনও আসিফ আনাম সিদ্দিকী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

গত সোমবার (১২ অক্টোবর) উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে মাসিক সভাকালে মেয়র আব্দুল বাতেনের বিরুদ্ধে ইউএনও আসিফ আনাম সিদ্দিকীকে লাঞ্ছিত এবং অশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল ও ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ ওঠে।

এরই ভিত্তিতে স্থানীয় সরকার বিভাগ মঙ্গলবার তাকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে। এ ঘটনায় বুধবার (১৪ অক্টোবর) রাতে বেড়া থানায় বরখাস্ত মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের তিনি আত্মগোপনে চলে যান।

সরকার করোনাভাইরাসকে ব্যবহার করে দুর্নীতির পাহাড় গড়েছে: ফখরুল