সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০ ইং, ১০ কার্তিক ১৪২৭ বাংলা

ফ্রান্সে শিক্ষককে জবাই,মুসলমানদের দোষারোপ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে: ২০২০-১০-১৭ ১২:৩১:৩২ /
ভারতকে দেখুন, কী নোংরা: ডোনাল্ড ট্রাম্প

 ভয়াবহ ঘটনার সাক্ষী থাকল ফ্রান্স । প্যারিসে রাস্তায় শিক্ষকের মাথা কাটল এক চেচেন ‘জেহাদি’। শুক্রবার এই ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানিয়েছে ফরাসি পুলিশ।

ফরাসি সন্ত্রাসদমন শাখার এক আধিকারিক জানিয়েছেন, শুক্রবার দুপুরে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের রাস্তায় এক শিক্ষকের মাথা কেটে ফেলে এক চেচেন ব্যক্তি। তাকে আটক করতে গেলে ধারাল অস্ত্র নিয়ে পুলিশ অধিকারিকদের প্রাণে মারার হুমকি দেয় সে। বাধ্য হয়ে শেষমেশ ওই বন্দুকধারীকে গুলি করে নিকেশ করেন নিরাপত্তারক্ষীরা। জানা গিয়েছে, প্যারিসের একটি স্কুলে পাঠদান করতেন স্যামুয়েল পি নামের নিহত শিক্ষক। ছাত্রদের ধর্মনিরপেক্ষতার পাঠ দিতে গিয়ে হজরত মহম্মদ (সা:)এর একটি কার্টুন দেখিয়েছিলেন তিনি। আর এই ঘটনার জন্য তাঁর উপর হামলা চালায় ওই চেচেন মৌলবাদী।

কয়েকদিন আগেই মুসলিম মৌলবাদের বিরুদ্ধে সুর ছড়িয়েছিলেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। ধর্মনিরপেক্ষ দেশ হিসেবে ফ্রান্সের ছবি কোনওদিনও মলিন হইতে দেবেন না বলে সাফ জানিয়েছিলেন তিনি। মুসলিম মৌলবাদের উত্থান নিয়েও দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেছিলেন তিনি। তারপরই তাঁর বয়ান নিয়ে দেখা দেয় বিতর্ক। অযথা ‘মুসলিম ভীতি’ ছড়াচ্ছেন ম্যাক্রোঁ বলেও অভিযোগ করেন তথাকথিত ধর্মনীরপেক্ষরা। এহেন পরিস্থিতিতে শুক্রবারের ঘটনা সাফ করে দিয়েছে যে ফরাসি দেশে ক্রমেই শিকড় মজবুত করছে মৌলবাদ।

এদিকে, এই ঘটনার পর একটি জরুরি বৈঠক ডেকেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তার আগে এই হামলার তীব্র নিন্দা করে তিনি বলেন, “এই হামলার নেপথ্যে রয়েছে মুসলিম মৌলবাদ। ওই শিক্ষক ছাত্রদের বাকস্বাধীনতার শিক্ষা দিচ্ছিলেন তাই তাঁকে প্রাণ দিতে হল। ফরাসি অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রী জেরাল্ড ডারমামিন জানিয়েছেন, গোটা ঘটনাচক্রের উপর নজর রাখা হচ্ছে। সব মিলিয়ে ইসলামিক স্টেটের কায়দায় এহেন হামলায় রীতিমতো আতঙ্কিত ফ্রান্স।সংবাদ প্রতিদিন

সরকার করোনাভাইরাসকে ব্যবহার করে দুর্নীতির পাহাড় গড়েছে: ফখরুল