বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০ ইং, ৭ কার্তিক ১৪২৭ বাংলা

ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসনে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু
ঢাকা কনভারসেশন ডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে: ২০২০-১০-১৭ ১২:৪৬:৫৫ /
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় বাংলাদেশের করোনা ভ্যাকসিন

ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসনে উপ-নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত এই দুই আসনে ইভিএমে ভোটগ্রহণ চলবে। 

ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগের মো. কাজী মনিরুল ইসলাম, বিএনপির সালাহ উদ্দিন আহমেদ, গণফ্রন্টের এইচ এম ইব্রাহিম ভূইঁয়া, জাতীয় পার্টির মীর আব্দুস সবুর, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. আনছার রহমান শিকদার ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. আরিফুর রহমান (সুমন মাস্টার)।

তবে সবথেকে বেশি আলোচনায় থাকবেন প্রধান দুই রাজনৈতিক দল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি মনোনীত প্রার্থীরা। এরই মধ্যে কর্মী সমর্থকদের নির্ভয়ে কেন্দ্রে যেয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করার আহবান জানিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী সালাহ উদ্দিন আহম্মেদ। 

অন্যদিকে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার আত্মবিশ্বাস আছে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মনিরুল ইসলামের।

ঢাকা-৫ আসনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৪টি ওয়ার্ডে মোট ১৮৭টি কেন্দ্রের ৮৬৪টি কক্ষে ভোটগ্রহণ চলছে। এখানে মোট ভোটার রয়েছেন ৪ লাখ ৭১ হাজার ১২৯ জন।

ঢাকা-৫ আসনে গত বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে আনুষ্ঠানিক প্রচার শেষ হয়েছে। গতকাল শুক্রবার মধ্যরাত থেকে শনিবার মধ্যরাত পর্যন্ত কিছু গণপরিবহনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বাড়তি সদস্য।

সকাল ১০টায় আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেওয়ার কথা রয়েছে আওয়ামী লীগের মো. কাজী মনিরুল ইসলামের। তবে এই আসনের নিবন্ধিত ভোটার না হওয়ায় ভোট দিতে পারছেন না বিএনপি প্রার্থী সালাহ উদ্দিন আহম্মেদ।  

এছাড়া রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলা নিয়ে নওগাঁ-৬ সংসদীয় আসন। এই দুই উপজেলায় মোট ১৬টি ইউপি। ভোটার আছেন ৩ লাখ ৬ হাজার ৭২৫ জন। রাণীনগরে আছেন ১ লাখ ৪৯ হাজার ৫৮৭ ভোটার এবং আত্রাই উপজেলায় আছেন ১ লাখ ৫৭ হাজার ১৩৮ ভোটার। এই দুই উপজেলায় মোট পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৫৩ হাজার ৭৫৮ জন এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ৫২ হাজার ৯৬৭ জন। 

রাণীনগর উপজেলায় ৪৯টি ভোটকেন্দ্রে এবং আত্রাই উপজেলায় ৫৫টি ভোটকেন্দ্রসহ দুই উপজেলায় মোট ১০৪টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে। এতে দুই উপজেলায় ১০৪ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৭২১ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার এবং ১ হাজার ৪৪২ জন পোলিং অফিসার হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করছেন। 

এছাড়াও ভোট কেন্দ্র এবং ভোটারদের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি এবং আনসার বাহিনী নিয়োজিত রয়েছেন। প্রতিটি ইউপিতে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছেন।

এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলাল, বিএনপির শেখ রেজাউল ইসলাম রেজু ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রার্থী ইন্তেখাব আলম রুবেল।

আলুর দাম নির্ধারণ করে দিল সরকার