বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০ ইং, ৭ কার্তিক ১৪২৭ বাংলা

পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ আবার প্রশ্নবিদ্ধ
ঢাকা কনভারসেশন ডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে: ২০২০-১০-১৭ ১৭:২৬:১৪ /
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় বাংলাদেশের করোনা ভ্যাকসিন
স্ত্রীর সাথে সেীগত


সম্প্রতি কলকাতা পুলিশকে নিয়ে এমন কয়েকটা ঘটনা সামনে এসেছে । করোনার সূচনায় যে পুলিশ ছিল নায়কের ভূমিকায়, তাদের বিরুদ্ধেই অভিযোগের আঙুল উঠছে।
ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং পুলিশ অফিসারদের একটা হোয়াটস অ্যাপ চ্যাটের অংশবিশেষ ফাঁস করে দাবি করেছেন, তাঁকে ফাঁসানোর জন্য পুলিশ উদ্যোগী হয়েছে। অর্জুন যে হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট ফাঁস করেছেন, তাতে দেখা যাচ্ছে, পুলিশ কর্তারা তাঁকে নিয়ে আলোচনা করছেন। একজন বলেছেন, 'শুনেছি, চার্জশিটে অর্জুনের নাম আছে। খবর পেলাম।' তার জবাবে অন্য এক অফিসার বলেছেন, 'ওটা তো রাখতেই হবে।' বলে একটা হাসির ইমোজি দিয়েছেন তিনি। আরেকজন বলেছেন, তিনি আবার মনীশ খুনের সঙ্গে জড়িত।এই চ্যাট নিয়েই আলোড়ন শুরু হয়। আনন্দবাজারের রিপোর্ট বলছে, যাঁদের নাম চ্যাটে আছে, তাঁদের দাবি, অর্জুন যে চ্যাট ফাঁস করেছেন বলে দাবি করেছেন সেটা জাল। কেউ জাল স্ক্রিনশট বানিয়েছে।

এই দাবিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন অর্জুন সিং। ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেছেন, ''আমি চ্যালেঞ্জ করছি, যে হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট ফাঁস হয়েছে, তা যদি মিথ্যা হয় তাহলে আমার নামে মামলা করুক পুলিশ।'' তাঁর বক্তব্য, ''রাজনৈতিকভাবে তৃণমূল হেরে গেছে বলে প্রশাসনকে দিয়ে চাপ তৈরির চেষ্টা করছে। এটা পশ্চিমবঙ্গে আগেও হয়েছে। বুদ্ধদেববাবু করেছেন। যাঁরা রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে যায়, তারা তখন পুলিশ দিয়ে, প্রশাসনকে দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করে।''

সম্প্রতি কলকাতার দুইটি স্পা-তে হানা দিয়ে কলকাতা পুলিশ মোট ১৬ জনকে গ্রেপ্তারকরে। তার মধ্যে একজন বাংলা টিভি সিরিয়ালের অভিনেতা। বিতর্ক শুরু হয়  অভিনেতাকে কেন্দ্র করে। ওই অভিনেতা আনন্দবাজারে তাঁর অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন। অভিনেতার নাম সৌগত বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, তিনি স্ত্রী-কে বলে মাসাজ নেয়ার জন্য ওই স্পা-তে গেছিলেন।  সে সময় পুলিশ হানা দেয় এবং তাঁকে গ্রেপ্তার করে। ওই স্পাতে তিনি প্রথমবার গেছিলেন।

এরপর এই ঘটনা নিয়ে প্রবল আলোড়ন দেখা দিয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে, সৌগতর বয়ান ঠিক হলে পুলিশ এরকম দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণ করে কী করে। তাদের একটা পদক্ষেপে তো একজনের জীবন কলঙ্কিত হয়ে যায়।ডয়েচে ভেলে

 

আলুর দাম নির্ধারণ করে দিল সরকার